শিক্ষিকাকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠল শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

teacher was accused of raping the teacher.
অভিযুক্ত যুবক সৌরভ দাস

আজবাংলা   অভিযুক্ত যুবক সৌরভ দাসের(২৪) বাড়ি জয়গাছি নেতাজী রোড এলাকায়।নির্যাতিতা তরুনী এবং অভিযুক্ত শিক্ষক সৌরভ দাস দুই জনেই হাবড়া থানার দেশবন্ধু পার্ক এলাকার একটি বেসরকারি স্কুলের শিক্ষকতা করেন। এক স্কুলে শিক্ষকতার সুবাদে দুই জনের আলাপ পরিচয় ভালই ছিল।পুলিশ জানিয়েছে সৌরভ দাস নিজে একটি কোচিং সেন্টার চালাতেন হাবরা অরবিন্দ রোড এলাকায়। গত ৯ সেপ্টেম্বর সৌরভ দাস তার কোচিং সেন্টারে শক্ষিকা তরুনীকে আসতে বলেন তার কোচিংয়ের ছাত্র ছাত্রীদের পড়ানোর জন্য। নির্যাতিতা শিক্ষিকা পুলিশকে জানিয়েছেন ঐ দিন কোচিং সেন্টারে আসার পরেই সৌরভ তাকে ঠান্ডা পানিয় দেন।এরপরেই সে অচৈতন্য হয়ে পড়েন।হাবড়া থানার পুলিশ জানিয়েছে শিক্ষিকা তরুনীকে সৌরভ দাস ধর্ষণ করে। সেই ছবি তুলে রেখেছিল সৌরভ। ছবি দেখিয়ে দিনের পর দিন শিক্ষিকাকে ব্ল্যাকমেল করতেন সৌরভ দাস।এই ঘটনার কথা কাউকে জানিয়ে দিলে ঘনিষ্ঠতার ছবি নেটে ছেড়ে দেওয়ারও হুমকি দিতেন তিনি। আর এই সুযোগ নিয়ে সৌরভ প্রায়ই শিক্ষিকার সাথে মেলামেশা করত এবং ভয় দেখিয়ে শিক্ষিকার কাছ থেকে টাকা আদায় করত বলেও পুলিশ জানতে পেরেছে। হাবড়া থানার পুলিশ জানিয়েছে শিক্ষিকার অভিযোগের ভিত্তিতে সৌরভ দাসকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতকে হাজির করা হয়েছিল বারাসত আদালতে।অভিযুক্ত শিক্ষককে পাচ দিনের পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। ঘটনাটি ঘটেছে হাবড়া থানা এলাকায়।