নদীয়ায় যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে তিন সদস্যের ফরেন্সিক তদন্তকারী দল

নদীয়ায় যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে তিন সদস্যের ফরেন্সিক তদন্তকারী দল

 নবদ্বীপ পৌরসভার  ছয় নম্বর ওয়ার্ডের প্রাচীনমায়াপুর লেক রোড এলাকায় এক যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যর ঘটনায় শনিবার বিকালে ঘটনাস্থলে সরোজমিনে তদন্তে এলেন তিন সদস্যের ফরেন্সিক দল। এদিন বিকেলে ফরেন্সিক সায়েন্স ল্যাবরেটরির অ্যাসিস্ট্যান্ট ডাইরেক্টর ডক্টর চিত্রাক্ষ সরকারের নেতৃত্বে তিন সদস্যে ফরেন্সিক দলটি ঘটনাস্থলে প্রায় এক ঘন্টা ধরে যাবতীয় নমুনা সংগ্রহ করে নবদ্বীপ থানায় ফিরে যান ওই দলটি।

এদিন বিকেলে ফরেন্সিক দলের পাশাপাশি ঘটনাস্থলে ছিলেন, কৃষ্ণনগর পুলিশ জেলার ডিএসপি (ডিএনটি) শুভাশিস চৌধুরী,নবদ্বীপ থানার আধিকারিক দেবাশীষ চ্যাটার্জী ও ঘটনার তদন্তকারী অফিসার স্বপন বিশ্বাসসহপুলিশেরঅন্যান্যআধিকারিকগণ। ঘটনাস্থল ছেড়ে যাওয়ার আগে তদন্তে আসা ফরেন্সিক সাইন্স ল্যাবরটরির অ্যাসিস্ট্যান্ট ডাইরেক্টর ডক্টর চিত্রাক্ষ সরকার জানান, ঘটনাস্থল সরজমিনে দেখে প্রমাণ সংগ্রহ করা হল। তিনি এও জানান, এর বেশি কিছু বলা এই মুহূর্তে সম্ভব নয়।

উল্লেখ থাকে যে,ঘটনাটি ঘটেছিল ৩০ শে আগস্ট রাত প্রায় সাড়ে বারোটা নাগাদ ৬ নম্বর ওয়ার্ডের লেক রোডে। সেই ঘটনায় বলরাম ওরফে রাজদীপ চক্রবর্তী নামক বছর পঁচিশের এক যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। সেই ঘটনায় যুবকের পরিবারের পক্ষ থেকে মৌখিকভাবে খুনের অভিযোগ তোলা হলেও প্রথমে কোনরকম লিখিত অভিযোগ হয়নি। এরপর ৯ সেপ্টেম্বর রানাঘাট কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক পার্থসারথি চ্যাটার্জীর নেতৃত্বে জেলা বিজেপির এক প্রতিনিধি দল ওই যুবকের বাড়িতে যাওয়ার পাশাপাশি, নবদ্বীপ থানার আরক্ষা আধিকারিকের সঙ্গে দেখা করে সঠিক তদন্তের দাবি তোলেন।

গত ১০ সেপ্টেম্বর রাতে নবদ্বীপ থানায় মৃত যুবকের মা, মূল অভিযুক্ত তন্ময় ভৌমিক  ও তার বাবা তপন ভৌমিক সহ বেশকিছু অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ হতেই লেক রোডের ওই ঘটনাস্থলটি  বিশেষ ভাবে ঘিরে ফেলে পুলিশ। পাশাপাশি ওই এলাকাটিকে নিরাপত্তার স্বার্থে রাতদিন পুলিশ প্রহরা বসান হয়। আজ শনিবার বিকেলে ঘটনাস্থলে সরোজমিনে তদন্তে আসে ফরেন্সিক সাইন্স ল্যাবরেটরির তিন সদস্যের দলটি।

পুলিশ সূত্রে জানতে পারা যায়, দীর্ঘদিন রাজ্যের বাইরে থাকার পর কোভিড পরিস্থিতির কারণে সম্প্রতি বাড়ি ফিরেছিলেন মৃত ওই যুবক। ৩০ আগষ্ট আনুমানিক রাত প্রায় সাড়ে বারোটা নাগাদ প্রাচীনমায়াপুর লেক রোডের ধারে বাইক সহ বলরাম ওরফে রাজদীপ চক্রবর্তী নামক যুবককে অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। সঙ্গে সঙ্গে যুবকের পরিবারকে খবর দিলে,পরিবারের লোকেরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। পরে স্থানীয় বাসিন্দাদের সাহায্যে ওই যুবককে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নবদ্বীপ স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা করে যুবককে মৃত বলে ঘোষণা করেন।