ত্রিপুরা-মিজোরাম বিতর্কিত সীমান্তে মন্দির নির্মাণ ঘিরে ১৪৪ ধারা জারি

ত্রিপুরা-মিজোরাম বিতর্কিত সীমান্তে মন্দির নির্মাণ ঘিরে ১৪৪ ধারা জারি

আগরতলা :    বিতর্কিত সীমান্তে মন্দির নির্মাণ-কে ঘিরে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে ব্যাঘাত ঘটার আশঙ্কায় মিজোরামের মামিত জেলায় ফুলডুঙশেই জম্পুই এবং জামুয়ান্টল্যাং এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে জেলা প্রশাসন। আগামী ১৯ ও ২০ অক্টোবর ত্রিপুরার সংরাঙ্গমা নামে একটি সংস্থা থাইদাওর ত্লাঙে একটি শিব মন্দির নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছে।

তাই, আজ ১৬ অক্টোবর থেকেই মামিত জেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করে দিয়েছে।আজ মামিত জেলা শাসক ডঃ লালরুজামা এক নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন। ত্রিপুরা-মিজোরাম সীমান্তে ফুলডুঙশেই এলাকায় বিতর্কিত জমিতে শিব মন্দির নির্মাণ-কে ঘিরে ওই আদেশ জারি করেছেন তিনি।

আদেশনামায় তিনি বলেছেন, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার উদ্দেশ্যে ফুলডুঙশেই জম্পুই এবং জামুয়ান্টল্যাং এলাকায় আজ থেকেই ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ফলে, ওই এলাকায় পাঁচ বা তার অধিক মানুষ-কে একত্রে চলাফেরায় নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। এক্ষেত্রে আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধি ১৮৮ ধারায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, জম্পুই মিজো কনভেনশন আগামী ১৯ ও ২০ অক্টোবর ৪৮ ঘন্টার বনধ-র ডাক দিয়েছে। মন্দির নির্মাণকে ঘিরেই ওই বনধ-র ডাক দেওয়া হয়েছে বলে খবর। এক্ষেত্রে ত্রিপুরা প্রশাসন এখনও কোন পদক্ষেপ নেয়নি।

সূত্রের খবর, আজ সন্ধ্যার পর উত্তর ত্রিপুরা জেলা প্রশাসন, পুলিশ সুপার এবং কাঞ্চনপুর মহকুমা প্রশাসন বৈঠকে বসেছে। মন্দির নির্মাণ ইস্যুতে মামিত জেলা প্রশাসনের নেওয়া পদক্ষেপের পরিপ্রেক্ষিতে আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে ত্রিপুরা সরকারও চিন্তাভাবনা শুরু করেছে।