ভারতের বাইরে ইউরোপজুড়ে ইউনিটের প্রধান নিয়োগ করলো কংগ্রেস

ভারতের বাইরে ইউরোপজুড়ে  ইউনিটের প্রধান নিয়োগ করলো কংগ্রেস

রাহুল গান্ধীর পদত্যাগের পর গত দু'বছর ধরে ভারতে দল পরিচালনার জন্য একজন পূর্ণকালীন সভাপতি খুঁজে পায়নি কংগ্রেস। কিন্তু ইউরোপজুড়ে বিভিন্ন ইউনিটের প্রধান নিয়োগ হয়ে গেল সাত তাগাদা। বেছে বেছে বিদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে কংগ্রেসে ইউনিটের প্রধানদের নাম ঘোষণা করা হল। টেকনোক্র্যাট-রাজনীতিবিদ স্যাম পিত্রোদার নেতৃত্বে কংগ্রেস বিস্তার লাভ করল বিদেশে।

চক্র বিয়ার ব্র্যান্ডের মালিক গরিসোবর সিং গিল নরওয়ে ইন্ডিয়ান বিদেশি কংগ্রেসের নতুন সভাপতি নিযুক্ত হলেন। গিল বলেন, তাঁর বাবা গুরমিল গিল ছিলেন প্রাক্তন জাতীয় ফুটবলার। তিনি ইউরোপের আইওসি-র প্রতিষ্ঠাতা এবং তাঁর নেতৃত্বে নরওয়েতে দলের বিস্তার লাভ করিয়েছিলেন। তিনি বলেন, "আমার বাবা সারাজীবন কংগ্রেসে ছিলেন। এখন আমি দায়িত্ব গ্রহণ করছি। আমার লক্ষ্য ভারতে বিনিয়োগ, শিল্প আনা।"

এই রাজনীতিতে প্রবেশ নিয়ে তিনি বলেন, "আমার দেশে কী হচ্ছে তা জেনে রাখা ভাল।" ফিনল্যান্ডে কংগ্রেসের পছন্দ হলেন ৩৫ বছর বয়সী বিজ্ঞানী কোমলকুমার জাভরপা। রক্তের ক্যান্সার নিয়ে গবেষণারত আণবিক জীববিজ্ঞানী যিনি কোপেনহেগেনের একটি সুপরিচিত হাসপাতালে নিযুক্ত আছেন। জাভরপা মহীশূরের বাসিন্দা। তিনি বলেন, আইওসিটি সম্প্রতি ফিনল্যান্ডে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং তিনি এর কার্যক্রমের সমন্বয় করছেন।

আমি যোগদানের জন্য আমার আগ্রহ প্রকাশ করে একটি ইমেল করেছিলাম। নিজের অনুপ্রেরণা সম্পর্কে জাভরপা বললেন, "আমি বিজ্ঞানী হিসাবে বিভিন্ন দেশে কাজ করেছি। আমি যখন ভারতে বিজ্ঞানের ক্ষেত্র বিশেষত স্বাস্থ্যের দিকে তাকাই তখন আমার মনে হয় আমাদের ভালো গবেষণার অভাব রয়েছে। আমার মতো বিজ্ঞানীদের এই ধরনের কাজে জড়িত হওয়া উচিত।

আমার ধারণা ভবিষ্যতে ভারতে ফিরে যাওয়া এবং আমার দেশের জন্য ভাল কিছু করা আমার লক্ষ্য। কংগ্রেসের আদর্শ আমাকে আকৃষ্ট করেছিল এবং অনুপ্রাণিত করেছিল।" অন্য নিয়োগপ্রাপ্তদের মধ্যে রয়েছে দিলবাগ চন্না (ইতালি), জয় কোচট্টু (সুইজারল্যান্ড), সোনিয়া হেলস্টেড (সুইডেন), সুনীল কোরাহ (অস্ট্রিয়া), সুখিভেন প্রীত সিং (বেলজিয়াম), হরপিন্দর সিংহ ঘাগ (হল্যান্ড) এবং অমরজিত্‍ সিং (পোল্যান্ড)। ইউরোপের আইওসি আহ্বায়ক রাজবিন্দর সিং বলেন, ২৩টি ইউরোপীয় দেশে এই আইওসি-র উপস্থিতি রয়েছে, যা যুক্তরাজ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী।