দমদমের রেডিমেড পোশাকের মহাজনের মারে মৃত্যু হল নদীয়ার ব্যবসায়ীর।

আজবাংলা চাকদা  টাকা চাওয়া নিয়ে বিবাদের সময় সপাটে কানে চড় কষান মহাজন দমদমের সিমলাই লেন এলাকার বাসিন্দা মহাজন লাল্টু পোদ্দারের । তাতেই মৃত্যু হয় নদিয়ার চাকদার মদনপুর কলতলা পাড়া এলাকার পোশাক ব্যবসায়ী সমীর সাঁধুখার ।নিহতের পরিবারের দাবি, গতকাল শুক্রবারও সমীর সাধুখাঁ স্থানীয় দুই ব্যবসায়ীর মাল নিয়ে মহাজনের কাছে যায়। এরপর রাত ৮ টা নাগাদ তাঁরা ফোন মারফত খবর পান যে সমীর অসুস্থ। আর জি কর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে যান পরিবারের লোক। সেখানে গিয়ে তাঁরা দেখতে পান সমীর সাঁধুখার মৃত্যু হয়েছে।পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে বিবাদের জেরেই এই ঘটনা। টাকা চাওয়া নিয়ে বিবাদের সময় সপাটে কানে চড় কষান মহাজন। তাতেই মৃত্যু হয় সাধুখাঁর। এই ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে পোশাক ব্যবসায়ী লাল্টু পোদ্দারের বিরুদ্ধে চিৎপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে নিহতের পরিবার। অভিযোগের ভিত্তিতে লাল্টু পোদ্দারকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে মাথা গরম করে লোকজনকে মারধর করা তাঁর নিত্যদিনের ঘটনা। যাঁরা তাঁর হয়ে রেডিমেড পোশাক তৈরির কাজ করেন, তাঁদের সঙ্গে অত্যন্ত দুর্ব্যবহার করতেন লাল্টু। দমদমের সিমলাই লেন এলাকার বাসিন্দা মহাজন লাল্টু পোদ্দারের থেকে মহিলাদের সায়া, ব্লাউজ, নাইটি কাটিং নিয়ে আসতেন। তারপর স্থানীয় শ্রমিকদের দিয়ে সেগুলোকে সেলাই করিয়ে আবার মহাজনের কাছে ফেরত দিয়ে আসতেন। দীর্ঘদিন ধরেই এই ব্যবসা করে আসছিলেন তিনি। অভিযোগ, শাসক দলের ছত্রছায়ায় রেডিমেড কাপড়ের ব্যবসার পাশপাশি এলাকায় ইমারতি দ্রব্যের সিন্ডিকেটের একছত্র সম্রাট সঞ্জীব ওরফে লাল্টু পোদ্দার। দমদমের সিমলাই লেনে তাঁর আলিসান বাড়ি রয়েছে।