কৃষ্ণনগরে ক্যানসার আক্রান্ত মা ও মেয়েকে মারধর অভিযোগ এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে

আজবাংলা কৃষ্ণনগর সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বেধড়ক মারধর ভিডিয়ো ভাইরাল হয় । তাঁতে দেখা যায় নদিয়ার কৃষ্ণনগরে শিক্ষিকা তথা ক্যানসার আক্রান্ত রোগীকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠেছে এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে।স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ওই ব্যবসায়ীর নাম ভগীরথ ঘোষ। কৃষ্ণনগরের ইমারতি সরঞ্জাম ব্যবসায়ী ভগীরথবাবুর সঙ্গে প্রতিবেশী ক্যানসার আক্রান্ত শিক্ষিকার প্রায়ই ঝগড়া লেগে থাকত। মূলত ওই শিক্ষিকার বাড়ির সামনের রাস্তার পাশেই ভগীরথবাবুর জমি রয়েছে। সেটা নিয়েই তাঁদের বিবাদ ছিল। তারপর গত ৭ জুলাই রাস্তা ও জঞ্জাল পরিষ্কার করা নিয়ে ভগীরথবাবুর স্ত্রী ও দুই মেয়ের সঙ্গে ওই শিক্ষিকার অশান্তি বাঁধে। তখনই ভগীরথবাবু ওই শিক্ষিকাকে বেধড়ক মারধর করেন বলে অভিযোগ। ওই শিক্ষিকাকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ভগীরথ ঘোষ। ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে তাঁর মেয়েকে পাল্টা মারধরের অভিযোগ তুলে ভগীরথ ঘোষ বলেন, 'ওই শিক্ষিকা আমার মেয়েকে কাঠারি দিয়ে আক্রমণ করতে যায়। আমাকে উদ্দেশ্য করে আমার মেয়েকে অশ্লীল ভাষায় গালাগালিও করছিল। আমি বাবা হয়ে মেয়ের সন্মান বাঁচাতেই তাঁকে চড় মারি।' ওই শিক্ষিকা কোতোয়ালি থানায় গিয়ে অভিযুক্ত ভগীরথ ঘোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। যদিও থানায় অভিযোগ জানিয়ে কোনও সুরাহা হয়নি। অভিযুক্ত ভগীরথ ঘোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার পর একসপ্তাহ পেরিয়ে গিয়েছে। কিন্তু পুলিশ এখনও কোনও পদক্ষেপ করেনি বলে অভিযোগ ওই শিক্ষিকার।