অযোধ্যা রায়কে স্বাগত জানিয়ে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করল কংগ্রেস

মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা
মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা

আজবাংলা অযোধ্যার রায়কে স্বাগত জানাল কংগ্রেস। দলের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন, ভগবান শ্রী রামের মন্দির নির্মাণের পক্ষে কংগ্রেস। রায়ের ফলে মন্দির তৈরির দরজা খুলে গেল। শুধু তাই নয়, বিজেপির রাজনীতিও বন্ধ হয়ে গেল।” কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা বলেন, “সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত চলে এসেছে। আমরা রামমন্দির বানানোর পক্ষে। এই সিদ্ধান্ত শুধুমাত্র মন্দির তৈরির দরজা খুলে দিল তাই নয় বিজেপি ও অন্য দলগুলোর রাজনীতি করার দরজাও বন্ধ করে দিয়েছে।

কংগ্রেসের তরফে দেশের সবার কাছে অনুরোধ করা হচ্ছে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখুন। দেশের অখণ্ডতা যাতে কোনওভাবেই নষ্ট না হয়।” গুজরাটের নির্বাচনের সময় থেকে ‘নরম’ হিন্দুত্ব’-এর কৌশল নিয়েছেন রাহুল গান্ধী। মন্দিরে মন্দিরে পুজো দিয়েছেন। নিজেকে পৈতেধারী হিন্দু ব্রাহ্মণ বলেও দাবি করেছেন রাহুল। শতাব্দীপ্রাচীন অযোধ্যা মামলার নিষ্পত্তি করল সুপ্রিম কোর্ট। অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রাম মন্দির নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-র নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি সাংবিধানিক বেঞ্চ এদিন সর্বসম্মতিক্রমে এই রায় দেয়। সুপ্রিম কোর্টে এই রায়দানের পর সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের আইনজীবী জানান, এই রায়কে সম্মান জানাচ্ছি। কিন্তু সন্তুষ্ট নই। অন্যদিকে হিন্দু মহাসভার আইনজীবী বরুণ কুমার জানান, এটি ঐতিহাসিক রায়। এই রায়ের মাধ্যমে বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্যের বার্তা দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।ভারতের ধর্মীয়-রাজনৈতিক ল্যান্ডস্কেপে বহু দশক ধরে সবচেয়ে বিতর্কিত ও রক্তক্ষয়ী ইস্যু হিসেবে চিহ্নিত হয়ে এসেছে এই বাবরি মসজিদ-রাম জন্মভূমি বিরোধ।শীর্ষ আদালতের মাধ্যমে সেই বিরোধের নিষ্পত্তির লক্ষ্যেই সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চ শনিবার এই রায় ঘোষণা করে।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!