স্বামীর সঙ্গে ফোনে কথা বলতে গিয়ে জোড়া সাপের উপর বসে পড়ায় ভয়ানক পরিণতি হল মহিলার

মহিলার বেডরুমে এক জোড়া সাপ
মহিলার বেডরুমে এক জোড়া সাপ

আজবংলা বুধবার গোরক্ষপুরের রিয়ানভ গ্রামের এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকায়। গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, মৃত গীতার স্বামী জয়সিং যাদব থাইল্যান্ডে কাজ করেন। গ্রামের বাড়িতে একাই থাকতেন গীতা। বুধবার জয়সিঙের সঙ্গেই ফোনে কথা বলছিলেন তিনি। এই সময়েই বাইরে থেকে দু’টি সাপ ঘরে ঢুকে পড়ে। নিঃশব্দে খাটের চাদরে মিশে যায়। এদিন স্বামী ফোন করায় তাঁর সঙ্গে কথা বলছিলেন সেই মহিলা। তার পর ফোনে কথা বলতে বলতেই এক জোড়া সাপের উপর বসে পড়েন তিনি।এক জোড়া সাপ কখন যে তাঁর বেডরুমে ঢুকে পড়েছিল বুঝতেই পারেননি সেই মহিলা। বিছানায় যে চাদর পাতা ছিল সেটির প্রিন্ট এমন ছিল যে সাপের অবস্থান বুঝতেই পারেননি তিনি। এর পরই স্বামীর সঙ্গে কথা বলতে বলতে খাটে বসেন মহিলা। প্রায় সঙ্গে সঙ্গে দুটি সাপ একসঙ্গে তাঁকে কামড়ায়। মারাত্মক বিষক্রিয়ায় মিনিট খানেকের মধ্যেই সেই মহিলার মত্যু হয়। জানা গিয়েছে, স্বামীর সঙ্গে ফোনে কথা বলতে বলতে ঘরের এদিক ওদিক পায়চারি করছিলেন সেই মহিলা। খেয়াল না করেই তিনি খাটের এক প্রান্তে বসে পড়েছিলেন। সাপ দুটি ছিল সেখানেই। এই মহিলার গোরখপুরের রিয়ান গ্রামের ঘটনা। মহিলা অজ্ঞান হওয়ার পরই তাঁর পরিবারের লোকজন তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ। সর্প বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, সম্ভবত মিলনরত ছিল সাপ দু’টি। মহিলা তাদের উপর বসতেই ভয় পেয়ে ছোবল মেরেছে তারা।এর পর পরিবার ও পাড়া পড়শিরা সেই ঘরে ফিরে এসে সাপ দুটিকে দেখতে পায় এবং তাদের পিটিয়ে মেরে ফেলে।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!