বন্দি মৃত্যুর অভিযোগে মালদায় পুলিশ ফাঁড়িতে আগুন লাগিয়েদিল মৃতের পরিবার ও স্থানীয়রা

আজবাংলা মালদা চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের ইংরেজবাজার থানার মিল্কি ফাঁড়িতে। ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই ফাঁড়ি ভাঙচুরের পাশাপাশি আগুন লাগিয়ে দেয় মৃতের পরিবার ও স্থানীয়রা। প্রাণ বাঁচাতে ফাঁড়ি ছেড়ে পালায় পুলিশ কর্মীরা। পরে ইংরেজবাজার থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি আয়ত্তে আনে।লক্ষ্মীপুজো উপলক্ষে রবিবার গভীর রাতে মালদহের মিল্কি ফাঁড়ি এলাকায় জুয়ার আসর বসেছিল। খবর পেয়ে সেখানে যায় মিল্কি ফাঁড়ির পুলিশ। পুলিশ ও সিভিক ভলান্টিয়রদের দেখেই পালানোর চেষ্টা করে আইনুল হক নামে ওই প্রৌঢ়। কোনওক্রমে ওই প্রৌঢ়কে ধরে ফেলে তাঁরা। অভিযোগ, সেখানেই মারধর করা হয় আইনুলকে। এরপর তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় মিল্কি ফাঁড়িতে। অভিযোগ, লকআপে রেখে বেধড়ক মারধর করা হয়। মারধরের জেরে ফাঁড়িতেই মৃত্যু হয় ওই প্রৌঢে়র। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। মিল্কি ফাঁড়িতে চড়াও হয় মৃত ব্যক্তির আত্মীয় ও প্রতিবেশীরা। ফাঁড়িতে ব্যাপক ভাঙচুরের পর আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। আহত হন পুলিশ কর্মীরা। প্রাণ বাঁচাতে ফাঁড়ি থেকে চম্পট দেন পুলিশ কর্মী ও সিভিক ভলান্টিয়ররা। তবে মৃতের পরিবারের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই দাবি করেছে পুলিশ। তাঁদের দাবি, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যক্তির।ফের যাতে এলাকা উত্তপ্ত হয়ে উঠতে না পারে সেই কারণে এলাকায় বসানো হয়েছে পুলিশ পিকেট।