দেহ নিতে অস্বীকার করল পরিবার, ছেলের মৃত্যুসংবাদ পেয়ে ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করলেন মা

দেহ নিতে অস্বীকার করল পরিবার, ছেলের মৃত্যুসংবাদ পেয়ে ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করলেন মা
আজবাংলা          শুক্রবার সকালে উজ্জয়িনী থেকে কানপুর ফেরার পথে এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের | নিজেদের সুরক্ষা করতেই গুলি চালাতে বাধ্য হন পুলিশবাহিনী | ছেলের মৃত্যুর খবর মায়ের কানে পৌঁছনো মাত্রই ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করলেন বিকাশ দুবের বৃদ্ধা মা সরলা দেবী | ছেলে যে কু কাজকর্ম করে বেড়াচ্ছে তা জানতেন এই বৃদ্ধা মা | এলাকায় সকলের মুখে মুখে মুখে ঘুরছে বিকাশের কার্যকলাপ | ছেলের মৃত্যুর খবর পৌঁছনো মাত্রই নিজেকে ঘরের মধ্যে বন্ধি করে নেন তিনি | মিডিয়ার শত আহ্বানেও কোনও সাড়া দেননি | পরিবারের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় সরলা দেবীর শরীর খারাপ | তিনি ঘরে শুয়ে আছেন | সরলা দেবী জানিয়ে দিয়েছিলেন তিনি লখনউতেই ঠিক আছেন | তিনি পুলিশের সঙ্গে কানপুরে যেতে চাননা | এই বৃদ্ধা মা পুলিশকে জানিয়েছিলেন তারসঙ্গে তার ছেলের কোন যোগাযোগ ছিল না | যখন পুলিশ বিকাশ দুবেকে গ্রেফতার করে | তখ বিকাশের মা জানিয়ে দেন পুলিশ যা ঠিক মনে করবে সেটাই করবে | গ্যাংস্টার বিকাশের মৃত্যুর পর তার বাড়ির কোন সদস্যই হাসপাতালে পৌঁছয়নি | যেহেতু তার বাবা কানপুরেই আছেন তাই জানা গিয়েছে পোস্টমর্টেমের পর বিকাশ দুবের দেহ তুলে দেওয়া হবে তার বাবার হাতে | কৃষ্ণানগরে বিকাশের বাড়ির বাইরে পুলিশের বড় দল মোতায়েন করা আছে | হৈলট হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় বিকাশ দুবের দেহ | সেখানেই তার পোস্টমর্টেম করা হয় | এরপর যখন কথা হয় তার মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে তখন বিকাশের পরিবার তাঁদের খুনী ছেলের মৃতদেহ নিতে অস্বীকার করেন | মেডিক্যাল কলেজের প্রিন্সিপাল চিকিৎসক জানিয়েছে গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের বুকে তিনটি গুলি লেগেছিল | তারসঙ্গে একটি গুলি হাতেও লেগেছিল | হাসপাতালে তার দেহ নিয়ে যাওয়ার পর তার করোনা ভাইরাসের টেস্টও হয় | রিপোর্ট নেগেটিভ আসে |   https://twitter.com/ANINewsUP/status/1281কলকাতাকলকাতা188991দেশ386দেশখেলা3?ref_src=twsrc%খেলাEtfw%দেশCtwcamp%খেলাEtweetembed%দেশCtwterm%খেলাE1281কলকাতাকলকাতা188991দেশ386দেশখেলা3%দেশCtwgr%খেলাE&ref_url=https%3A%2F%2Fbengali.news18.com%2Fnews%2Fcrime%2Fgangstar-vikas-dubey-killed-encounter-updates-postmortem-family-refuse-to-take-dead-body-dd-কলকাতাদেশ126দেশ.html