প্রয়াত যোগী আদিত্যনাথের বাবা, লকডাউনের জেরে যেতে পারবেন না শেষকৃত্যে

আজবাংলা  করোনা নিয়ে জরুরি বৈঠক করছিলেন যোগী আদিত্যনাথ৷ তার মধ্যেই সকাল ১০.৪৪ মিনিটে নিজের বাবারমৃত্যুসংবাদ পেলেন তিনি৷কিডনির অসুখে ভুগে প্রয়াত হলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বাবা আনন্দ সিংহ বিস্ত।শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় গত ১৩ মার্চ দিল্লির এইমস-এ ভর্তি করা হয়েছিল যোগী আদিত্যনাথেরবাবাকে৷ তাঁর ভেন্টিলেটশনে রাখতে হয়েছিল৷ দিল্লির এইমসে সোমবার সকাল ১০.৪৪-এ মারা যান তিনি। উত্তরপ্রদেশের অতিরিক্ত স্বরাষ্ট্র সচিব অবনীশ আওয়াস্তি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘‘মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর বাবা ১০.৪৪-এ পরলোকের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছেন। আমাদের গভীরতম সমবেদনা।'' বাবার মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করে যোগী আদিত্যনাথ জানিয়েছেন, তিনি বাবার শেষকৃত্য করতে শ্মশানে যেতে পারবেন না করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কারণে। তবে করোনা প্রকোপ সামাল দিতে এই মুহূর্তে লকডাউন চলছে উত্তরপ্রদেশ-সহ দেশের সমস্ত রাজ্যে। এই অবস্থায় বাবার শেষকৃত্যে যোগ দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ। এ দিন সকালে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘‘বাবার মৃত্যুতে আমি শোকাহত। বাবা আমাকে একনিষ্ঠ, পরিশ্রমী এবং নিঃস্বার্থ হতে শিখিয়েছেন। শেষ সময়ে বাবার কাছে থাকতে চেয়েছিলাম। কিন্তু উত্তরপ্রদেশের ২৩ কোটি মানুষের দায়িত্ব হাতে থাকায় তা হয়ে ওঠেনি।’কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব এবং কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা-সহ অনেকেই যোগীকে সমবেদনা জানিয়েছেন।প্রসঙ্গত, উত্তরপ্রদেশে এখনও পর্যন্ত ৯৬৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন করোনা ভাইরাসে। মৃত ১৪। সারা দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭,০০০ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা ৫০০-রও বেশি।