ভবঘুরেদের জন্য বিনামূল্যে খাওয়া ব্যবস্থা করলো হোটেল মালিক

আজবাংলা    বহরমপুর     তবু জাতীয় সড়ক ধরে প্রতিদিন হেঁটে চলেন ওরা। খিদে পেলে দাঁড়ান গিয়ে রাস্তার লাইনহোটেলে বা ধাবায়। কিন্তু লকডাউনের জেরে হোটেল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগের শেষ নেই ওদের।বহরমপুরের গির্জার মোড়ে ভবঘুরেদের জন্য খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করেছে হোটেল মালিক।লকডাউন এর জেরে মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই।   মাছ, মাংস, ডিম যে যা খাবে সেভাবেই অসহায় ভবঘুরেদের চেয়ার টেবিলে বসিয়ে খাওয়াচ্ছেন হোটেল মালিক। প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০জন ভবঘুরেদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা হোটেল কর্তৃপক্ষের। ৩০ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশেই এই হোটেল। গাড়ি না চললেও এই ভবঘুরেরা প্রতিদিনই পায়ে হেঁটে যাতায়াত করে জাতীয় সড়ক ধরে। কোন হোটেল না খোলা থাকায় লকডাউন-এর জেরে তাঁদের খাবার মিলছিল না। প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০ জন আসছেন তাঁর হোটেলে। ওই হোটেলের কর্মী অসীম শেখ বলেন, ‘লকডাউনের জেরে হোটেল বন্ধের কারণে খাবার না-পেয়ে হাঁটার শক্তি হারিয়ে রাস্তায় বসে পড়ছিলেন অনেকে। সেটা দেখার পরই আমরা ভবঘুরেদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করি। ওদের খাওয়াতে পেরে নিজেদেরও খুব ভালো লাগছে।’ হোটেলের পাশে থাকা মুদিখানার মালিক নবকুমার মণ্ডল বলেন, ‘যে ভাবে সাধারণ মানুষকে খাওয়ানো হয় ঠিক সেভাবেই তাঁদের খাওয়ানো হচ্ছে। এখন দেখছি, ঠিক সময়ে চলে আসছে ওরা।’