করোনার মধ্যে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দুদের অত্যাচার থেমে নেই

stopped in Corona

আজবাংলা  ঢাকা    বাংলাদেশের সমুদ্র উপকুলবর্তী পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার পাখিমারা গ্রামের এক সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারের উপর ওই এলাকার প্রাক্তন এমপি আনোয়ার মিয়ার ভাই সুলতান মিয়ার লাঠিয়াল বাহিনীর আঘাতে তিন সংখ্যালঘু হিন্দু মহিলা গুরুতর আহত হয়েছে।

ঘরে থাকা আসবাবপত্র থেকে শুরু করে সোনা দানা ও মূল্যবান সামগ্রীও লুটপাট হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার বিকেল । আহতদের উদ্ধার করে কলাপাড়া স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। এখন সেখানেই চিকিত্‍সাধীন আহতরা। তারা বলেছেন জোর করে জমি দখল করতে এই হামলা ও লুটপাট করেছে সুলতান গ্রুপের প্রভাবশালী মহলটি।জেলার পুলিশ সুপারের নির্দেশে সংশ্লিষ্ট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান অভিয়ুক্তের বিরুদ্ধে  ১৪৩/১৪৮/৩২৫/৩২৩/৩০৭/৩৮০/৩৭৯/৪২৭/ ৩৫৪/৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা নাম্বার ১২ তারিখ ১৭।০৫।২০২০। এ-পর্যন্ত দুইজন আসামিকে হামলা এবং লুটপাটের অপরাধে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতার কৃতরা হলেন মো. মিজান মিয়া (৩৫) মোসাম্মত্‍ রুমা বেগম (২৪)। তারা উভয়ে পাখিমারা গ্রামের সুলতান গ্রুপের লাঠিয়াল। এজাহার ভুক্ত আসামিরা হলেন, মোঃ নিজাম মিয়া, আলাউদ্দিন মিয়া, জসীম মিয়া, কাবির গাজী, মোঃ রাজ্জাক সরদার, মসাম্মত লাইলা বেগম, মসাম্মত রুমা বেগম, ঝরনা বেগম, মোঃ আমিরুল ইসলাম।

হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন আহত বৃদ্ধা শোভারানী স্থানীয় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, তার পুত্রবধূ তাপসী রানি (৩৫) এবং অন্য পুত্রবধূ মালতী রানী (২৮) কে সন্ত্রাসীরা দেহের বিভিন্ন অংশে ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এই সময় তাঁর কানের এবং আলমিরাতে থাকা সোনার হার সহ প্রায় ৩ লক্ষ টাকা লুঠ করেন। মেরে ফেলার জন্য এই হামলা করা

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!