চাঞ্চল্যকর সমীক্ষা প্রকাশ মুসলিমরা সাধারণত অপরাধপ্রবণ মনে করেন অর্ধেক পুলিসকর্মী

আজবাংলা চাঞ্চল্যকর সমীক্ষা প্রকাশ করল কমন কস এবং লোকনীতি-সেন্টার ফর দ্য স্টাডি ডেভেলপিং সোসাইটিস নামে অলাভজনক সংস্থা।এই সমীক্ষায় জানানো হয়েছে এ দেশে প্রতি দু’জনের মধ্যে একজন পুলিস কর্মী মনে করেন, সাধারণভাবেই মুসলিমরা অপরাধপ্রবণ। জানা যাচ্ছে, ওই সমীক্ষা চালানো হয়েছে দেশজুড়ে ১১,৮৩৪ পুলিসকর্মীর মতামতের ভিত্তিতে। চলতি বছরে ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত ২১টি রাজ্যে ওই সমীক্ষা চালানো হয়।   ১৪ শতাংশ পুলিস কর্মী মনে করেন, মুসলিমরা সাধারণত অপরাধপ্রবণ। এই তালিকায় প্রথম স্থানে রয়েছে উত্তরাখণ্ডের পুলিস। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ওই রাজ্যের ৭৯ শতাংশ পুলিসকর্মী এমনই ভাবনা পোষণ করেন। অন্য দিকে, ৩৬ শতাংশ পুলিসকর্মী মনে করেন, মুসলিমদের কেউ কেউ অপরাধ করে থাকেন।সমীক্ষায় আরও প্রকাশ, দাগী অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনি মামলা চলার থেকে মেরে ফেলা উচিত বলেন জানাচ্ছেন প্রতি পাঁচ জনের মধ্যে একজন পুলিসকর্মী। প্রতি তিন জন পুলিসকর্মীর এক জন মনে করেন, অপরাধীদের উপর অত্যাচার চালানোর প্রয়োজন, তেমনই প্রতি পাঁচ জনের চার জন পুলিসকর্মী জানাচ্ছেন, অভিযুক্তদের বেধড়ক মার দিয়েই অপরাধ কবুল করানো দরকার। কাজের নিরিখে মহিলা পুলিসকর্মী লিঙ্গবৈষম্যের শিকার হন বলে মেনে নিচ্ছেন বেশিরভাগ পুলিসকর্মীই। ওই সমীক্ষায় আরও একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। গো হত্যাকারীদের গণপিটুনির শিকার হওয়া স্বাভাবিক বিষয় বলে মনে করেন দেশের ৩৫ শতাংশ পুলিসকর্মী! এমনকি শিশু অপহরণ, ধর্ষণ এবং গাড়ি দুর্ঘটনায় চালকের গাফিলতি স্বাভাবিক বিষয় বলে প্রায় ৪০ শতাংশ পুলিসকর্মী জানিয়েছেন।