ফিরহাদের বিরুদ্ধে কথা বলায় সাধন পাণ্ডেকে শোকজ করলো তৃণমূল

আজবাংলা     কেন শৃঙ্খলাবিরোধী কাজের অভিযোগে পদক্ষেপ নয়? দলের অভ্যন্তরে না জানিয়ে কেন প্রকাশ্যে সরব?, এই ‘ক্ষোভ’ নিয়ে সাধন পাণ্ডেকে শোকজের নোটিস দলের। শীর্ষ নেতৃত্বের নির্দেশে শোকজ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের।  আমফান পরবর্তী পরিস্থিতি সামলাতে ‘ব্যর্থ’ কলকাতা পুরসভা। শহরের বিধায়কদের মতামত নেননি দায়িত্বে থাকা পুরসভার প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। প্রকাশ্যে সংবাদমাধ্যমে এমন তোপ দাগার জেরে দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে শোকজ করা হয় রাজ্যের মন্ত্রী সাধন পাণ্ডেকে। দলের শীর্ষ নেতৃত্বের নির্দেশে উত্তর কলকাতা জেলা তৃণমূল সভাপতি সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় বুধবার দলের মানিকতলা কেন্দ্রের বিধায়ককে শোকজন করেন।মানিকতলার বিধায়ক তথা রাজ্যের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে মঙ্গলবার বলেন, “আমফান নিয়ে আগেই হাওয়া অফিস সতর্ক করেছিল। কিন্তু পুরসভা প্রস্তুতি নেয়নি। নিলে সাত দিনের মাথাতেও শহরের এই হাল থাকত না।” পুরমন্ত্রী কেন প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে আমফান পূর্ববর্তী পরিস্থিতিতে মোকাবিলার পন্থা নিয়ে আলোচনা করলেন না সে বিষয়েও প্রশ্ন তোলেন ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরের মন্ত্রী। প্রবীণ দলীয় নেতা হয়েও কেন তিনি দলীয় ফোরামে নিজের মতামত না জানিয়ে প্রকাশ্যে দলের মন্ত্রী তথা প্রশাসকদের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন তা জানতে চেয়েছে তৃণমূল। সাধন পাণ্ডের থেকে এ বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। এদিকে, বুধবার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাধন পাণ্ডে এবং কাউন্সিলর অনিন্দ্য রাউতের অনুগামীদের মধ্যে ব্যাপক গন্ডগোল হয় বলে জানাগেছে। ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ওই অশান্তির সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর অনিন্দ্য রাউতও।