আলিপুরদুয়ারের তপসিখাতায় পাওয়ার গ্রীড কাজ আটকে দিয়েছিলেন গ্রামবাসীরা

গ্রামবাসী
গ্রামবাসী

আজবাংলা আলিপুরদুয়ার ঃ আলিপুরদুয়ারের তপসিখাতায় পাওয়ার গ্রীড কর্পোরেশনের বিদ্যুৎ ট্রান্সমিশন সেন্টার থেকে শিলিগুড়িতে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য হাইটেনশন ট্রান্সমিশন তার বসানোর কাজ আটকে দিয়েছিলেন গ্রামবাসীরা। তার বসানোর কাজে দেড় কোটি টাকার মেশিনও গ্রাম বাসিরা আটকে দেয় বলে অভিযোগ ওঠে। আর তার জেরেই আলিপুরদুয়ার ১ নম্বর ব্লকের উত্তরসোনাপুর খালপাড়া গ্রামে বৃহস্পতিবার এক গ্রামবাসিকে আটক করে পুলিশ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এদিন ১ নম্বর ব্লকের এই গ্রামে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। গ্রামবাসিরা এক হয়ে তার বসানোর কাজে আসা শ্রমিকদের ঘিরে বিক্ষোভ শুরু করলে শ্রমিকরা কাজ করতে পারেন নি। গ্রামবাসিদের অভিযোগ ফসলের খেতের উপর দিয়ে এই কাজের জন্য তার যাচ্ছে। ক্ষেতের মধ্যে লোহার পিলার বসানো হচ্ছে। নিয়ম থাকা স্বত্যেও ক্ষতিপুরন পাচ্ছেন না গ্রামবাসিরা। কিছু মানুষকে অর্ধেক ক্ষতিপুরন দিলেও বাকি অর্ধেক ক্ষতিপুরন না দিয়ে কাজ করতে চাইছে সংস্থ্যা। গ্রামবাসিরা কাজে বাধা দিলে তাদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কিছু মানুষকে অর্ধেক ক্ষতিপুরন দিলেও অনেককে ক্ষতিপুরন বাবদ কোন টাকাই এখনও দেওয়া হয় নি। উত্তর সোনাপুর খালপাড়ার বাসিন্দা স্বপন কুমার ঘোষ বলেন, “ এর আগে কথা বার্তা সব ঠিক ছিল । কিছু মানুষকে অর্ধেক ক্ষতিপুরন দেওয়া হয়েছে। বাকি অর্ধেক ক্ষতিপুরন বিডিও অফিস মারফত দেওয়ার কথা। কিন্তু বাকি ক্ষতিপুরন দেওয়া হচ্ছে না। তার আগেই ফের কাজ শুরু করা হচ্ছে। আমরা প্রতিবাদ করলে উলটে আমাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। প্রশাসনিক কর্তাদের কাছে অনুরোধ তারা যেন আমাদের ন্যায্য ক্ষতিপুরনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। না হলে ভবিষ্যতে গোটা গ্রাম বৃহত্তর আন্দোলন শুরু করবে।” জানা গিয়েছে স্থানিয় গ্রামবাসি রাজু ঘোষকে পুলিশ বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করে কোর্টে পাঠায়। কোর্ট থেকে জামিন পেয়েছেন রাজু । সোনাপুর পুলিশ ফারির ও সি মিংমা শেরপা বলেন, “ কর্মরত সংস্থ্যার অভিযোগের ভিত্তিতে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিদ্যুতের তার বসানোর কাজের মেশিন অন্যত্র নিয়ে যেতে চাইছেন সংস্থ্যা। কিন্তু গ্রামবাসিরা সেই মেশিন আটকে দিয়েছে বলে অভিযোগ। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আদালত থেকে তিনি জামিন পেয়েছেন।” বিদ্যুতের তার বসানোর কাজের প্রকল্পের প্রজেক্ট কো অর্ডিনেটর অভিজিত রায় বলেন, “ উত্তর সোনাপুরে আমাদের কাজ বন্ধ হয়ে রয়েছে। এখন মেশিনটাও আটকে দেওয়া হচ্ছে। ক্ষতিপুরনের অর্থ চুক্তি মতো দেওয়া হয়েছে। আমরা জেলা প্রশাসনকে বিষয়টি জানিয়েছি।” আলিপুরদুয়ার ১ নম্বর ব্লকের বিডিও শ্রেয়সী ঘোষ বলেন, “ আমরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছি। সমস্যা মিটে যাবে। গ্রামবাসিরা ক্ষতিপুরনের অর্থ পাবেন। ”

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!