এক পিস মাছ খেয়ে ফুটফুটে তরুণী রাতারাতি হয়ে গেলেন বৃদ্ধা

আজবাংলা     ২৩ বছরের ওই তরুণীকে দেখলে মনে হবে যেন ৭৩ বছরের বৃদ্ধা! আর সেই তরুণীর দাবি, শুধুমাত্র এক পিস মাছ খেয়েই নাকি তাঁর জীবনে এমন বিপর্যয় নেমে এসেছে।গাঁজাখুড়ি কোনও গল্পও নয়। বাস্তবে ঠিক এমনই ঘটেছে ভিয়েতনামে। মুখভর্তি ভাঁজ, ঝুলে পড়া চামড়া মধ্যাহ্নভোজে মাছ খেয়েছিলেন গৃহবধূ থি ফুয়ং। তার পরই  সারা শরীর চুলকোতে শুরু করেন তিনি। শরীরে শুরু হয় অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন। টাকা ছিল না। তাই সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে যেতে পারেননি তিনি। স্থানীয় একটি ওষুধের দোকান থেকে ওষুধ কিনে খান। কিন্তু তাতে কোনও কাজ হয় না। অ্যালার্জির জেরে ধীরে ধীরে বুড়িয়ে যেতে থাকেন তিনি। ২০০৮ সালের ঘটনা। তার পর থেকে গত ১২ বছরে রোগ সারেনি তাঁর। ভিয়েতনামের মেকং ডেলটা অঞ্চলের বেন ট্রি এলাকার বাসিন্দা থি ফুয়ং এখন একেবারেই বুড়িয়ে গিয়েছেন। এখনও নিজের বিয়ের ছবি দেখলে কেঁদে ওঠেন তিনি। চিকিত্সকরা জানিয়েছেন, বিরল লাইপোডিসট্রফি অসুখে আক্রান্ত ফুয়ং। এই সিনড্রোম-এর চিকিৎসা নেই বললেই চলে। সারা বিশ্বে প্রায় দুহাজার মানুষ এই বিরল রোগে আক্রান্ত। এই অসুখে ত্বকের নীচে পুরু ফ্যাটি টিস্যুর স্তর তৈরি হয়। যার ফলে চামড়া ঝুলে যায়।