টলি পাড়ায় আবারও বসন্তের ছোঁয়া? এ বার বিয়ের পিঁড়িতে কি দেব?

আজবাংলা    লাল কার্ডের উপর ঝলমল করছে সোনালি রঙের লেখা- “শ্রী শ্রী প্রজাপতয়ে নমঃ”। এদিকে আবার স্বস্তিক চিহ্ন থেকে ‘শুভবিবাহ’ লেখা, কার্ডে পালকি-প্রজাপতি সবই রয়েছে। এমন চিরাচরিত একটি বিয়ের কার্ডের ছবি শেয়ার করেই দেব টুইট করেছেন, “কেউ ফাঁস করার আগেই দিলাম। আশা করি, আপনাদের আশীর্বাদ থাকবে।” এমন টুইট ঘিরেই টলিপাড়া-সহ দেবের অনুরাগীমহলে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা।

উপরন্তু দেব-রুক্মিনীর সম্পর্ক যে এখন ‘ওপেন সিক্রেট’, তা বোধহয় বলাইবাহুল্য। চার হাত এক হওয়া এখন শুধু অপেক্ষার। এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর চর্চা। পাত্রী কি তবে রুক্মিণী? এমনিতেই তাঁদের সম্পর্কের রসায়ন নিয়ে বেশ কয়েক বছর ধরেই শোনা যায় নানা ধরনের গুঞ্জন। নিজেরা যদিও বারেবারেই ‘নিছক ভালবন্ধু’ বলে ব্যাপারটা এড়িয়ে যান। তবে একসঙ্গে কেনিয়া ট্যুর থেকে  একসঙ্গে রেস্তরাঁ যাওয়া…সবই চলতে থাকে পুরোদমে। তাই দেব ওই পোস্ট শেয়ার করতেই তাঁর সোশ্যাল অ্যাকাউন্টে শুভেচ্ছার ঢল নেমেছে। শুধু দেব নয়, ফ্যানেরা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রুক্মিণীকেও।

সাংসদ অভিনেতা দেব কি সত্যিই তাঁর দীর্ঘদিনের ‘বান্ধবী’ রুক্মিনী মৈত্রের সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন, নাকি বিয়ের কার্ট টুইটের নেপথ্যে রয়েছে অন্য কোনও কারণ? এই উত্তর পাওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা! কিন্তু সূত্রের খবর বলছে, এটা দেবের পাবলিসিটি স্টান্ট! আসলে একটি নতুন ছবি আসছে। যে ছবিতে এক বৃদ্ধ-বৃদ্ধার বিয়ে দেখা যাবে। আর তাই দেবের এই বিয়ের কার্ট টুইট। তবে সেই ছবির অভিনেতা না প্রযোজক তিনি, তা এখনও অধরাই! প্রসঙ্গত, লোকসভা ভোটের সময় দেব ব্যস্ত থাকায় রুক্মিণীও টুইট করে প্রকাশ্যে ‘ভালোবাসি তোমাকে’ বলেছিলেন। কিন্তু পরে জানা গেল ওটা ‘কিডন্যাপ’ ছবির গান।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!