পাকিস্তান থেকে ফোন করে মুম্বাইয়ের তাজ হোটেলকে ফের উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি

পাকিস্তান থেকে ফোন করে মুম্বাইয়ের তাজ হোটেলকে ফের উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি
আজবাংলা           ফের হুমকির আয়োজ উড়ে এল মুম্বাইয়ের তাজ হোটেলে | আবার কি দেশের অর্থনৈতিক রাজধানী মুম্বইয় ধ্বংসের মুখে? বোম দিয়ে উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছে দেশের বাণিজ্যিক রাজধানীকে অর্থাৎ মুম্বাইকে | সূত্র থেকে যা জানা গিয়েছে পাকিস্তান থেকে ফোন করে হুমকি দেওয়া হয়েছে মুম্বাইয়ের তাজ হোটেলকে | যে ফোন করেছিল সে জানিয়েছে করাচি স্টক এক্সচেঞ্জে যে আতঙ্কবাদী হামলা হয়েছে তা সারা পৃথিবী দেখেছে | তাহলে আবার কি আমাদের দেশ সাক্ষী হয়ে থাকতে চলছে আগের বার ২৬/১১-র মত |পাকিস্তান থেকে হুমকি দিয়ে ফোন করার পরেই মুম্বাই পুলিশকে খবর দেন তাজ হোটেল | সেই কারণে তাজ হোটেলে এবং তার আশেপাশের অঞ্চলে সুরক্ষা ব্যবস্থা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে | গতকাল রাতে পাকিস্তান থেকে ফোন আসার পরেই মুম্বাই পুলিশকে খবর দিয়েছিলেন হোটেল কর্তৃপক্ষ | তারপরেই মুম্বই পুলিশ ও হোটেলের নিরাপত্তাবাহিনী পুরো হোটেলের সুরক্ষাব্যবস্থা খুঁটিয়ে দেখেন | তাজ হোটেলের সমস্ত বোর্ডার ও গেস্টদের সব তথ্য ফের একবার খতিয়ে দেখা হচ্ছে | তার সঙ্গে তল্লাশি চালনা হচ্ছে দক্ষিণ মুম্বইয়ে নাকাবন্দীতে | ২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর ছিল সেই ভয়াবহ দিন | ওই দিনটির কথা মনে পড়লে আজ সকলের গায়ে কাটা দিয়ে ওঠে | মুম্বইয়ের আতঙ্কবাদী হামলা এখনও সকলের মনে দগদগে ঘা- হয়ে আছে | সেই হামলায় মৃত্যু হয়েছিল ১৬৬ জনের এবং আহত হয়েছিল প্রায় ৩০০ জন | ৬০ ঘন্টা ধরে আতঙ্কবাদীরা চালিয়েছিল ওই হামলা | মুম্বইয়ের সেই আতঙ্কবাদী হামলায় একমাত্র জীবিত ধরা গিয়েছিল আজমল কাসভকে | তাঁকে জেরা করার সময় জানা গিয়েছিল পাকিস্তানে কীভাবে এই বিশালাকৃতি হামলার প্ল্যানিং করেছিল | সেই হামলায় ভারতে পা দিয়েছিল ১০ জন হামলাকারী | সুমুদ্র পথে এসেছিল তারা মুম্বাইকে ধ্বংস করার জন্য | মুম্বইয়ে পৌঁছনোর পর আতঙ্কবাদীরা ছত্রপতি শিবাজী রেলওয়ে টার্মিনাল, তাজ হোটেল, ট্রাইডেন্ট হোটেল, -র মত একাধিক জায়গায় হামলা চালিয়েছিল |