ধর্ষণে জড়িত দোষীদের শাস্তির দাবিতে ত্রিপুরা পুলিশের কার্যালয় ঘেরাও প্রদেশ মহিলা কংগ্রেসর

ত্রিপুরা পুলিশ
ত্রিপুরা পুলিশ

আজবাংলা গত ১৩ আগস্ট রাতে বটতলা থেকে সেকেরকোট যাওয়ার পথে জনৈক মহিলা যাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তিনজনের বিরুদ্ধে। তাঁদের মধ্যে একজন ত্রিপুরা পুলিশের কর্মচারী। ওই ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত অভিযোগের ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। তাই, আজ প্রদেশ মহিলা কংগ্রেস এবং যুব কংগ্রেস ত্রিপুরা পুলিশের সদর কার্যালয় ঘেরাও করেছিলেন।প্রদেশ যুব কংগ্রেসের কার্যনির্বাহী সভাপতি শান্তু সাহা বলেন, চারদিন অতিক্রান্ত হয়ে গিয়েছে। অথচ দোষীদের গ্রেফতার করছে না রাজ্য পুলিশ। তাঁর অভিযোগ, পুলিশ কর্মীই ওই ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত, তাই কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, ত্রিপুরায় মহিলারা সুরক্ষিত নন। ফলে, বাধ্য হয়ে পুলিশ সদর কার্যালয় ঘেরাও করতে হয়েছে। তাঁর কথায়, দোষীদের গ্রেফতার করার পরই ঘেরাও তুলে নেওয়া হবে। শান্তু সাহার নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দল পুলিশ সুপারের সাথে ওই ঘটনা নিয়ে আলোচনা করেন। শেষে শান্তু সাহা বলেন, প্রায় ৪৫ মিনিট ঘেরাও থাকার পর পশ্চিম ত্রিপুরা জেলা পুলিশ সুপার দোষীদের গ্রেফতারের প্রতিশ্রুতি দেন এবং তার পরই তাঁরা ঘেরাও তুলে নেন।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!