মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ অভিবাসী ঠেকাতে ট্রাম্পের নতুন আইন

trump to prevent illegal immigrants
অবৈধ অভিবাসী ঠেকাতে ট্রাম্পের নতুন আইন

আজবাংলা   যুক্তরাষ্ট্রের জাস্টিস ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ জানায় যারা যুক্তরাষ্ট্রের প্রবেশের ক্ষেত্রে প্রেসিডেন্টের কোনো নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করবে তাদের ক্ষেত্রে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রযোজ্য হবে না। যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলের সীমান্ত দিয়ে প্রবেশকারী অবৈধ অভিবাসীরা যাতে আশ্রয় আবেদন না করতে পারে তার জন্য ট্রাম্প প্রসাশন নতুন আইন চালু করতে যাচ্ছে। অভিবাসী সমর্থকরা এই পদক্ষেপের নিন্দা করেছেন। তারা বলছেন, এই আইন যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসী সংক্রান্ত আগের আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। আগের আইনে বলা আছে, স্বদেশে কেউ নিপীড়ন বা সহিংসতা শিকার হলে তিনি আশ্রয়ের আবেদন করতে পারবেন। বৈধ বা অবৈধ অভিবাসী যাই হোক না কেন। ট্রাম্প প্রশাসন ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক আশ্রয় চাওয়ার বিষয়টিতে কড়াকড়ি আরোপ করেছে। প্রশাসনিক কর্মকর্তারা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রে বিদ্যমান অবৈধ অভিবাসীদের উৎসাহিত করে এবং বৈধ দাবিগুলোকে নস্যাৎ করে দেয়।কর্মকর্তারা বলছেন, এই আইনটি পুরোপুরি কার্যকর হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলের সীমান্ত দিয়ে প্রবেশকারী অভিবাসীরা যদি প্রবেশদ্বারে নাম অন্তর্ভুক্ত করেন তাহলে শুধুমাত্র তারাই আশ্রয়ের জন্য আবেদন করতে পারবেন। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বাক্ষরিত একটি আদেশের সঙ্গে বৃহস্পতিবার আইনটি  প্রকাশিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে প্রবেশকারী অবৈধ অভিবাসীদের আশ্রয় আবেদনে কার্যকরীভাবে নিষিদ্ধ করবে এই আইন। প্রেসিডেন্ট চাইলে ‘জাতীয় স্বার্থে’ অভিবাসন প্রক্রিয়া আটকে দিতে পারেন বলেও এক যৌথ বিবৃতিতে জানিয়েছে তারা। চলতি বছরের মধ্যবর্তী নির্বাচনের প্রচারাভিযানে অবৈধ অভিবাসীদের আটকাতে কার্যকর একটি অভিবাসন প্রক্রিয়ার ওপর জোর দিয়েছিলেন ট্রাম্প। মধ্য আমেরিকা থেকে মেক্সিকো হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দিকে ছুটে যাওয়া হাজারও অভিবাসন প্রত্যাশী কারাভানের দিকেও ছুড়েছিলেন একের পর এক তীর। ওই কারাভান ঠেকাতে সীমান্তে সৈন্যও পাঠিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট, মেক্সিকো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকে পড়তে চাওয়াকে তিনি ‘বহিঃশত্রুর আক্রমণ’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।