প্রতীক্ষার অবসান, মহানগরে এবার টোটো চালু করল উবের

প্রতীক্ষার অবসান, মহানগরে এবার টোটো চালু করল উবের

আজ বাংলা:  প্রতীক্ষার অবসান। অবশেষে মহানগরে এ বার ই-রিকশা বা টোটো চালু করল উবের ৷ সম্প্রতি এ কথা সকলকে জানিয়েছে বিশ্বের জনপ্রিয় এই পরিবহণ সংস্থা। Uber-এর তরফে জানানো হয়েছে যে কলকাতা এবং আশপাশের বেশ কিছু অঞ্চলে সবমিলিয়ে আপাতত ৫০০টি ই-রিকশার পরিষেবা চালু করছে সংস্থা ৷

Uber-এর এই উদ্যোগ কোভিড ১৯ ভাইরাসের সংক্রমণকালে যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্যের দিকটাই তুলে ধরছে। এক দিকে যেমন এখনও এই শহরের সব অঞ্চলে চাইলেই পাওয়া যাচ্ছে না অ্যাপ ক্যাব, তেমনই অন্য গাড়ির পরিষেবা নিয়েও সমস্যার মুখে অল্প বা বিস্তর পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের। ধীরে ধীরে হলেও আবার শুরু হয়ে গিয়েছে অফিসে যাতায়াত। 

এদিকে সম্প্রতি এই খবরও মিলেছে যে খুব তাড়াতাড়িই স্কুল এবং কলেজগুলিও খুলে দেওয়া হবে। সে দিক থেকে এই ৫০০টি ইলেকট্রনিক রিকশা চালুর খবর, নিঃসন্দেহে সুখবর তো বটেই!

সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে এই শহরের কথা ধরলে আপাতত বারাসত, মধ্যমগ্রাম, রাজারহাট, সল্টলেকে Uber-এর এই ইলেকট্রনিক রিকশার পরিষেবা পাওয়া যাবে। পাশাপাশি, হাওড়ার কিছু নির্দিষ্ট অংশেও তা সুলভ হবে, এ কথাও জানা গিয়েছে সংস্থা মারফত।

হাওড়া এবং কলকাতা মিলিয়ে এই ৫০০টি ইলেকট্রনিক রিকশা প্রয়োজনের চেয়ে কম মনে হলেও আদতে বিশেষজ্ঞমহল ঘটনায় আশার আলোই দেখতে পাচ্ছেন। মাসখানেক আগেই রাজধানী দিল্লিতে এই এক পরিষেবা চালু করেছিল সংস্থা।

কিন্তু সেখানে দুই রকমের সীমাবদ্ধতা ছিল। দিল্লির পথে নামানো হয়েছে মাত্র ১০০টি ইলেকট্রনিক রিকশা। দ্বিতীয়ত, দিল্লির ক্ষেত্রে তা কেবল সুলভ হবে মেট্রো স্টেশনগুলোর বাইরে, একমাত্র মেট্রো থেকে বেরিয়েই তা ভাড়া করার সুযোগ পাবেন যাত্রীরা। 

কলকাতা এবং হাওড়া মিলিয়ে যে ৫০০টি ইলেকট্রনিক রিকশা লঞ্চ করা হয়েছে, তা নয়। শহরের যে কোনও অংশ থেকেই তা বুক করা যাবে Uber-এর অ্যাপ মারফত, ঠিক যে ভাবে গাড়ি বুক করা হয়ে থাকে, সেই পদ্ধতি অনুসরণ করেই এই ইলেকট্রনিক রিকশাগুলো বুক করতে হবে। বিশেষজ্ঞমহলের আশা, ভবিষ্যতে কলকাতা এবং হাওড়া মিলিয়ে আরও বেশি সংখ্যায় ইলেকট্রনিক রিকশা নামাবে সংস্থা।