লন্ডন ব্রিজে হামলাকারীর উসমান খান জঙ্গিগোষ্ঠী আল-কায়দার ভাবাদর্শে বিশ্বাসী

আজবাংলা লন্ডন ব্রিজে ছুরিকাঘাতে দুই ব্যক্তিকে হত্যা করা ব্যক্তির পরিচয় প্রকাশ করেছে পুলিশ।
উসমান খান (২৮) নামের ওই যুবক আগেও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জন্য জেল খেটেছেন। জঙ্গিগোষ্ঠী আল-কায়দার ভাবাদর্শে বিশ্বাসী ২৮ বছর বয়সী উসমান খান ২০১০ সালে লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জের হামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তার ১৬ বছরের জেল হয়।

গত বছরই সে প্যারোলে মুক্তি পেয়েছে। তবে ২০১২ সালে সাজা ঘোষণার সময় উসমান খানকে ‘সিরিয়াস জেহাদি’ বলে মন্তব্য করেন বিচারক। সে সাধারণ মানুষের পক্ষে বিপজ্জনক বলেও তিনি মন্তব্য করেন। অনুমতিসাপেক্ষে ২০১৮ সালে সে ছাড়া পেয়েছে জেল থেকে। ডিসেম্বর মাসে ছাড়া পাওয়ার পর থেকেই সে স্ট্যাফোর্ড এলাকায় বসবাস করছিল।প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এক টুইট বার্তায় বলেন, ঘটনা সম্পর্কে তিনি অবগত। ঘটনার পর পুলিশ ও জরুরি সেবায় কর্মরত ব্যক্তিরা ত্বরিত পদক্ষেপ নেওয়ায় তাঁদের ধন্যবাদ জানান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, সন্ত্রাসীদের পূর্ণ সাজা খাটতে হবে। মারাত্মক ও সহিংস অপরাধীদের ক্ষেত্রে দ্রুত মুক্তির বিষয়টি ভুল সিদ্ধান্ত। সন্ত্রাসী ও মারাত্মক অপরাধীদের উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা জরুরি।স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার তথা কাউন্টার টেররিজম পুলিশের প্রধান নীল বসু জানান শুক্রবার লন্ডন ব্রিজের কাছে ঐতিহাসিক ফিসমোঙ্গার হলে একটি অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন ওসমান খান।লোকজন প্রথমে মনে করেছিলেন যে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে মারামারি হচ্ছে। পরে বোঝা যায় হামলার কথা। হামলা আন্দাজ করে কয়েকজন দৌড়ে রেস্তরাঁয় ঢুকে যান। দ্রুত হাজির হয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায় অ্যাম্বুল্যান্স। নভেম্বরের শুরুতে যুক্তরাজ্যে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কার মাত্রা কমিয়ে দেওয়ার একমাসের মধ্যে এই হামলার ঘটনা ঘটলো বলে জানিয়েছে। এর আগে ২০১৭ সালের ৪জুন লন্ডন ব্রিজ এবং বার মার্কেটে হামলায় ৭জন নিহত হয়েছিলেন।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!