সৎ মায়ের অত্যাচারে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হওয়া যুবককে উদ্ধার করলো গ্রামবাসীরা।

দেবু সিংহ আজবাংলা মালদা,   সৎ মায়ের অত্যাচারে বাড়ি ছেড়ে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক বলে অভিযোগ উঠেছিল। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সেই যুবককে উদ্ধার করে পুলিশের হাতে তুলে দিলেন গ্রামবাসীরা। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে হবিবপুর থানার কলাইবাড়ি গ্রামে। পরে নিখোঁজ যুবকের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে নিজের বাড়িতেই তাকে ফেরানোর ব্যবস্থা করে পুলিশ। বলাবাহুল্য , হবিবপুর এলাকাতেই বিগত দিনে ছেলে ধরা , শিশু চোর সন্দেহে বেশ কয়েকটি গণপিটুনির ঘটনা ঘটেছিল । কিন্তু এক্ষেত্রে কলাইবাড়ি গ্রামের মানুষেরা মানবিকতার নজির গড়ে দিয়েছেন। গ্রামবাসীদের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে পুলিশ ও প্রশাসনের কর্তারা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,  নিখোঁজ যুবকের নাম মনোজ মণ্ডল (২৯) । তার বাড়ি ইংরেজবাজার থানার কোতুয়ালি গ্রাম পঞ্চায়েতের দৈবকিপুর গ্রামে । বাবা নিরঞ্জন মণ্ডল,  পেশায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। দীর্ঘদিন আগেই মা কল্পনা মন্ডলের মৃত্যু হয় । এরপর নিরঞ্জনবাবু দ্বিতীয় বিয়ে করেন। কয়েক বছর ধরে নানান অশান্তি, অত্যাচারের ফলে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে মনোজ মণ্ডল। এরপরই সে এক সপ্তাহ আগে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় । পরবর্তীতে ওই যুবকের পরিবারের লোকেরা খোঁজ শুরু করে । ইংরেজবাজার থানায় নিখোঁজের অভিযোগ দায়ের করা হয় । এছাড়া বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতেও ছড়িয়ে দেওয়া হয় মনোজের ছবি।  এবং তার নিখোঁজ হওয়ার কথা। কলাইবাড়ি এলাকার একাংশ গ্রামবাসীদের বক্তব্য,  কয়েকদিন ধরেই ওই যুবক গ্রামে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করছিল। তার ওপর সন্দেহের বশে কোন আঘাত না আসে সেই জন্য জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় । অসংলগ্ন কথা বার্তাতেই উঠে আসে মানসিক ভারসাম্যহীনতার বিষয়টি ।এরপরই ওই যুবককে স্থানীয় গ্রামবাসীরা সেবা, শুশ্রুষা করে তার পরিচয় জানার চেষ্টা করে। নিজের নাম বলতে পারলেও ঠিকানা বলতে সক্ষম হয় নি সে। পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই যুবকের ছবি সন্ধান পান গ্রামবাসীরা । এরপরই পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাকে বাড়ি ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়। হবিবপুর থানার পুলিশ জানিয়েছে,  বৃহস্পতিবার রাতে স্থানীয় একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার হাতে ওই যুবককে গ্রামবাসীরা তুলে দেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই যুবকের পরিচয় মিলে ।এরপরই ইংরেজবাজার থানার পুলিশের সাথে যোগাযোগ করা হয় । তারপর ওই যুবককে তার বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। হবিবপুর থানার আইসি ত্রিদিব প্রামানিক জানিয়েছেন , কলাইবাড়ি গ্রামের বাসিন্দারা মানবিকতার পরিচয় দিয়েছেন।  পুলিশ ও প্রশাসনের উদ্যোগে যেভাবে সচেতনতামূলক কর্মসূচি চালানো হচ্ছে । তারই একটি উদাহরণ এদিনের এই মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে ফিরিয়ে দেওয়ার ঘটনা।