কোন স্যানিটাইজার কিনবেন এবং কোনটি কিনবেন না? দেখে নিন বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন

কোন স্যানিটাইজার কিনবেন এবং কোনটি কিনবেন না? দেখে নিন বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন
আজ বাংলাঃ   করোনার দৌলতে দৈনন্দিন জীবনে আমরা বদলেছি কিছু অভ্যাস। পরিস্কার পরিচ্ছতার ব্যাপারে বাড়তি নজর দিতে শিখেছি আমরা। রোজকার শাক সব্জির সঙ্গে এখন আমাদের প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী হয়ে উঠেছে স্যানিটাইজার। কোনও কাজের শেষে এই তরল পদার্থ এখন আবশ্যক। বাজারে এখন অনেক রকমের স্যানিটাইজার রয়েছে। দুই একটি বাদ দিয়ে বাকি কোম্পানির নাম হয়তো আমরা অনেকেই শুনিনি। কিন্তু 'দাদা ভালো হবে তো' বলে দোকানদারের থেকে কিনে আনছি কোনও না কোনও একটি স্যানিটাইজার। করোনার চাপে আমরা এখনও হয়তো বুঝতে শিখিনি আসল এনং নকল স্যানিটাইজারের পার্থক্য। আসল নকল ছাড়াও কোন স্যানিটাইজার ব্যবহার করা উচিৎ সেটাও আমাদের জানা প্রয়োজন। কারণ উপাদানে এদিক ওদিক হলে লাভের বদলের আমাদের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। আসুন দেখে নেওয়া যাক এই ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন। স্কুল অফ ট্রপিক্যাল মেডিসিনের এক চিকিৎসক অধ্যাপক জানাচ্ছেন, স্যানিটাইজারে সবসময় অ্যালকোহলের পরিমাণ থাকতে হবে ৭০ শতাংশ, যা হাতকে জীবাণুমুক্ত করবে।বেশি মাত্রায় অ্যালকোহলের ব্যবহার হাতের চামড়া শুকিয়ে গিয়ে ক্ষতি হতে পারে। অর্থাৎ কেনার সময় দেখে নিতে হবে প্যাকেটের গায়ে ৭০ শতাংশ অ্যালকোহল লেখা রয়েছে কিনা। কেউ কেউ সস্তায় বেশি লাভের জন্য মিথাইল ব্যবহার করে থাকতে পারেন। কিন্তু মিথাইল বার্নিশ করতে বা অন্যান্য শিল্প ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। মানব দেহে ব্যবহারের জন্য মিথাইল আদর্স উপাদান নয়। মিথাইল এর বিষক্রিয়াতে হতে পারে ক্লান্তি বা মাথা ঘোরার মত সমস্যা, দৃষ্টিশক্তি তে সমস্যা হতে পারে। তাই কেনার আগে দেখে নিন স্যানিটাইজারটির উপাদান কী কী রয়েছে।