স্বামীর কাটা মুন্ডু নিয়ে পাঁচ কিলোমিটার পথ হেঁটে থানায় মহিলা

গণেশ্বরী বার্কাটাকি
গণেশ্বরী বার্কাটাকি

আজবাংলা মঙ্গলবার রাতে দায়ের কোপ মেরে স্বামীকে মেরে তার কাটা মুন্ডু একটি প্লাস্টিক ব্যাগে ভরে পাঁচ কিলোমিটার পথ হেঁটে থানায় আসে মাজগাঁওয়ের ওই মহিলা। আচমকাই কাটা মুন্ডু হাতে ঢালপুর থানায় তাকে দেখে রীতিমতো হকচকিয়ে যান পুলিশ কর্তারা। এর আগে মহিলার কাটা কুন্ডু নিয়ে কোনও ব্যক্তির থানায় হাজির হওয়ার একাধিক ঘটনা শিরোনামে এসেছে। পুলিশি জেরায় গণেশ্বরী বলে, “অনেক বছর ধরে স্বামী আমায় মারধর করত। অনেক সময় আমার উপর কুড়ুল নিয়েও আক্রমণ করেছে। গুরুতর আহতও হয়েছি বহুবার। অনেকদিন আগেই ভেবেছিলাম, স্বামীকে ছেড়ে চলে যাব। কিন্তু পাঁচ সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে সেটা পারিনি । এই ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্যকর ছড়িয়েছে অসমের লখিমপুর জেলায়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত মহিলার নাম গণেশ্বরী বার্কাটাকি। বয়স ৪৮ বছর। বছর পঞ্চান্নর মুধিরাম দীর্ঘদিন ধরেই তার উপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার চালাত। সেই অমানবিক অত্যাচারের হাত থেকে নিজেকে বাঁচাতেই এই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলে স্ত্রী।