নদিয়া জেলার বড়চাঁদঘর গ্রাম পঞ্চায়েতের সামনে বিয়ের দাবিতে ধর্নায় বসলেন তরুণী

ধর্নায় বসলেন তরুণী
ধর্নায় বসলেন তরুণী

আজবাংলা কালিগঞ্জ রবিবার সকাল থেকেই নিজের প্রেমিককে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসে বছর চব্বিশের সার্জিনা খাতুন। খবর সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়তেই চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। অভিযোগ ছেলের বাড়ির লোকজন রজনৈতিক ও টাকা পয়সার প্রভাব খাটিয়ে রবিবার রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ হঠাত্‍ই সার্জিনাকে তুলে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ । যে ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ সেই রাজু শেখকে গ্রেপ্তার না করে পুলিশ নিয়ে যায় সার্জিনা খাতুনকে । স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গ্রামেরই যুবক রাজু শেখের সঙ্গে সার্জিনার দীর্ঘদিনের ঘনিষ্ঠতা।সার্জিনা জানান, স্কুল পড়ার সময় তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক হয়। দু’জনে কলেজেও ভর্তি হন। পড়ে রাজু পড়াশোনা ছেড়ে দিয়ে বাইরে কাজে যান। তাঁর বাড়িতে রাজুর যাতায়াতও আছে।আজ আবার বড়চাঁদঘর গ্রাম পঞ্চায়েতে সামনে বিয়ের দাবিতে ধর্নায় সার্জিনা । সার্জিনা খাতুন অভিযোগ রাজুর পরিবার প্রভাব খাটিয়ে পুলিশ দিয়ে আমাকে আইনি জটিলতায় ফেলে দিতে চাইছে। পুলিশ আমার বিরুদ্ধে গিয়ে রাজুর পক্ষ নিয়েছে। আমাকে জোর করে মেডিকেল টেস্টের জন্য পাঠানো হয়েছে। আমি শুধু রাজুর সাথে বিয়ে করতে চেইছি। আমি রাজুর নামে কোন কেস করতে চাই না । এলাকার বাসিন্দার দের অভিযোগ স্থানীয় প্রভাব শালি তৃণমূল নেতার কথাতে অন্যায় ভাবে মেয়েটিকে ভয় দেখাছে কালীগঞ্জ থানার পুলিশ । ছেলের বাড়ির লোকজন রজনৈতিক ও টাকা পয়সার প্রভাব খাটিয়ে এই সমস্ত করছে । প্রশ্ন উঠছে সার্জিনা কি শেষ পর্যন্ত তার প্রেমের স্বীকৃতি পাবে?  

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!